1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamin830@gmail.com : Ajkerajker Ganamat : Ajkerajker Ganamat
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৪:৫১ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক । যোগাযোগ: 01773730313
সংবাদ শিরোনাম :
আজ আরাফাতের ময়দান মুখরিত হচ্ছে ‘লাব্বাইক’ ধ্বনিতে বাবুগঞ্জে উপজেলায় ফারজানা, বানারীপাড়ায় ফারুক এবং উজিরপুরে ইকবাল নির্বাচিত বরিশালে ক্লাবফুট চিকিৎসাসেবা নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত। বরিশালে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সাংবাদিকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য-প্রধান তথ্য অফিসার বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্বপন’র পক্ষে গণজোয়ার বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন ফারজানার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষ, প্রচারণায় বাধার অভিযোগ বাকেরগঞ্জে ৩ যুবককে কুপিয়ে আহত ঝলকাঠি উপজেলা নির্বাচনে সরাসরি হস্তক্ষেপ করছেন আমির হোসেন আমু টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বান্দরবানে গোলাগুলি, ৮ লাশ উদ্ধার

  • প্রকাশিত : শনিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৬৯ 0 বার সংবাটি দেখেছে

 

আজকের গণমত ডেস্কঃ

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় দুটি সশস্ত্র সংগঠনের মধ্যে গোলাগুলির পর একটি পাড়া থেকে আটজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ৷

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার খামতাং পাড়ায় এ ঘটনার পর জীবন বাঁচাতে অন্তত ৭০টির মতো নৃ-গোষ্ঠীর পরিবার এলাকা ছেড়ে যায়৷

শুক্রবার রোমা ও রোয়াংছড়ি উপজেলার সংযোগ সড়কের মাঝামাঝি খামতাং পাড়া থেকে গুলিবিদ্ধ এসব লাশ উদ্ধার করা হয় বলে জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) তারিকুল ইসলাম জানান৷

দুপুরে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসপি বলেন, “দুটি সংগঠনের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে৷ খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে আটজনের মৃতদেহ দেখতে পায়৷ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়৷”

তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেনি পুলিশ৷

রোয়াংছড়ি থানার ওসি আব্দুল মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, “আটটি লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে৷”

কাদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানতে পারেননি ওসি৷

খামতাং পাড়ার কারবারি মানিক খিয়াং বলেন, “গতকাল দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে বলে শুনেছি৷ আজ পুলিশ এসে আটটি লাশ উদ্ধার করে নিয়ে গেছে৷ ভয়ে এলাকার ৭০টির মতো পরিবার এখন বাড়ি ছেড়ে চলে গেছে৷”

কাদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে তা জানেন না বলেও জানান পাড়া কারবারি৷

পাশের রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান উ হ্লাং মং মার্মা বলেন, “এরই মধ্যে রুমা উপজেলা সদরের বম কমিউনিটি সেন্টারে ৪০ জন নারী ও শিশু এসে আশ্রয় নিয়েছে৷ তাদের নামের তালিকা করা হচ্ছে আরও আসছে বলে শুনেছি৷”

তাদের খাবারসহ আনুষঙ্গিক বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান ইউপি চেয়ারম্যান৷

পুলিশ জানিয়েছে, এলাকায় নিরাপত্তা বৃদ্ধি করা হয়েছে৷ পাশাপাশি কারা এই গোলাগুলির ঘটনায় জড়িত তাদের ব্যাপারে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ