1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamin830@gmail.com : Ajkerajker Ganamat : Ajkerajker Ganamat
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ১১:৩১ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক । যোগাযোগ: 01773730313
সংবাদ শিরোনাম :
আজ আরাফাতের ময়দান মুখরিত হচ্ছে ‘লাব্বাইক’ ধ্বনিতে বাবুগঞ্জে উপজেলায় ফারজানা, বানারীপাড়ায় ফারুক এবং উজিরপুরে ইকবাল নির্বাচিত বরিশালে ক্লাবফুট চিকিৎসাসেবা নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত। বরিশালে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সাংবাদিকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য-প্রধান তথ্য অফিসার বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্বপন’র পক্ষে গণজোয়ার বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন ফারজানার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষ, প্রচারণায় বাধার অভিযোগ বাকেরগঞ্জে ৩ যুবককে কুপিয়ে আহত ঝলকাঠি উপজেলা নির্বাচনে সরাসরি হস্তক্ষেপ করছেন আমির হোসেন আমু টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন ফারজানার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষ, প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪
  • ৭ 0 বার সংবাটি দেখেছে

 

আজকের গণমত ডেস্ক।। শেষ মুহুর্তে প্রচারমুখর হয়ে ওঠছে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। প্রার্থীরা স্ব স্ব অবস্থান থেকে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচারযুদ্বে চালিয়ে যাচ্ছেন। পৌছে যাচ্ছেন সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায়। যদিও বৈরি আবহাওয়ায় প্রচার কিছুটা বাধাগ্রস্ত হলেও মাঠে ছাড়ছেনা প্রার্থীরা। উন্নয়নের নানাবিধ প্রতিশ্রুতি ও তা বাস্তবায়নের অঙ্গীকার নিজের ছুটছেন ভোটারদের কাছে। আর জনপ্রতিনিধিত্বের চেয়ারে আসীন হতে নানা কৌশলে ভোটারদের আস্থা অর্জনে গুরুত্ব দিচ্ছেন তারা। এবারে প্রার্থী তালিকায় নতুনদের আধিক্য লক্ষ্য করা গেছে। মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে ও সুবিধা বঞ্চিত স্ব স্ব এলাকার উন্নয়নে ভুমিকা রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেই তারা অংশ নিয়েছেন নির্বাচনী এ লড়াইয়ে। এমনি এক রাজনৈতিক মানবিক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ফারজানা বিনতে ওহাব। আসন্ন চতুর্থ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলা থেকে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়ে আনারস প্রতীকে লড়ছেন তিনি। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে মানুষের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছেন তিনি। সাধারণ মানুষের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করে নিচ্ছেন খোজখবর। এছাড়া তাদের কাঙ্খিত উন্নয়ন বাস্তবায়নেরও প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

জানা যায়, ফারজানা বিনতে ওহাব বাবুগঞ্জ উপজেলার প্রথম উপজেলা চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা বেইস কমান্ডার আব্দুল ওহাব খানের সুযোগ্য কন্যা। দুইবার উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও ১ বার জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করে তার যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন।

রাজনীতিতে সম্পৃক্ত থেকে জনসাধারণের সেবায় তিনি নিজেদের নিয়োজিত রেখেছেন বারংবার। সমাজের উন্নয়নে অবহেলিত মানুষের পাশে থেকে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলো অতিবাহিত করে চলেছেন । সেই সেবার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতেই এবারে অংশ নিয়েছেন নির্বাচনে। মূলত একজন জনপ্রতিনিধি হতে নয় একজন সফল জনসেবক হিসেবে মানুষের মাঝে নিজেকে বিলিয়ে দেয়ার প্রয়াসেই তার এ স্বীদ্ধান্ত।

বাবুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বাসিন্দারা জানান, ইতিবাচক মুল্যবোধের অধিকারী সম্পন্ন ব্যক্তিত্ব ফারজানা জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময় মানুষকে সেবার মধ্য দিয়ে কাটিয়ে যাচ্ছেন। মানুষের ভাগ্যয়োন্ননের প্রয়াসে দিন-রাত স্বপ্ন বুনে চলেছেন। তিনি সর্বদা দান-সদকার পাশাপাশি সমাজের গরীব দুঃখী অবহেলিত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের দুর্ভোগ লাঘবের প্রচেস্টা অব্যাহত রেখেছেন। ইসলামের খেদমতেও বারংবারই একধাপ এগিয়ে তিনি। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায়সই নানাবিধ চাহিদা সাধ্যমত পূরণ করছেন তিনি। সমাজ সেবামুখী প্রত্যেক ইতিবাচক কর্মকান্ডে তাকে সক্রিয় অবস্থানেই দেখা যায়। তিনি শুধু এই এলাকায়ই নয়, নিজের সর্বোচ্চ সাধ্যমত বিভিন্ন স্থানের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে প্রায়সময়ই প্রশংসা কুড়িয়ে চলেছেন। তার এসব কর্মকান্ড অব্যহত থাকুক।

প্রতিবেদককে তিনি জানান, ২০০৯ সালে প্রথম মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হই। সেসময় থেকেই মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছি। উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছি। এই থেকেই নিজের প্রতি আস্থা তৈরি হয়েছে। মানুষের সেবায় আরও বেশি নিজেকে নিয়োজিত রেখে তাদের উন্নয়নে ভুমিকা রাখার প্রত্যয় নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতায় নেমেছি।

তিনি বলেন, আমার বাবা ছিলেন কৃষিবান্ধব। তিনি বাবুগঞ্জ উপজেলার প্রথম উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি কৃষকদের জন্য ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করেছেন । কৃষকদের জন্য সেচনালা থেকে শুরু করে ব্যাপক খাল খননের ধরকার রয়েছে। চাষাবাদে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কৃষিক্ষেত্রে ব্যাপক গুরুত্বারোপ করেছেন। তার নির্দেশনা অনুযায়ী প্রত্যেকটি জমির খন্ড যেন আমাদের কৃষকরা কাজে লাগাতে পারেন সকলের সহায়তায় সে লক্ষ্যে কাজ ক্রয়ার চেস্টা করবো। এছাড়া নারীদের উন্নয়নেও ব্যাপক কর্মযজ্ঞ বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি জানান, পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি নামে আমার একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। আমার শেয়ারের যে অর্থ রয়েছে সেটি পুরোটাই দান করে দিয়েছি। ওই প্রতিষ্ঠানে নারীদের প্রশিক্ষন দেয়া হচ্ছে। যাতে করে প্রত্যেকটি নারী স্বাবলম্ভী হতে পারেন। এছাড়া ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নেও সর্বোচ্চ পর্য্যায়ের কাজ করবেন বলে জানান চেয়ারম্যান প্রার্থী ফারজানা।

এদিকে ফারজানা জানান, আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীর মাধ্যমে আমার কর্মী সমর্থকদের হুমকি-বাধা প্রদান করা হচ্ছে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে তিনি অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান। তিনি জানান, আমার সমর্থকদের প্রতিনিয়ত হুমকি দেয়া হচ্ছে। নানাভাবে হয়রানী করছে । এতে আমার প্রচারণা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

ভোটারদের প্রতি তিনি জানান, আতঙ্কিত হবেন না। নির্ভয়ে কেন্দ্রে যাবেন। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আমি আপনাদের (জনগণ) প্রার্থী। জণগণের ভালবাসায় নির্বাচিত হব। ইনশাল্লাহ।

উল্লেখ্য, তফসিল অনুযায়ী আগামী ৫ জুন বাবুগঞ্জ উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে । এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন এস এস খালেদ হোসেন স্বপন (কাপ-পিরিচ), ফারজানা বিনতে অহাব( আনারস), উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে মোঃ ইকবাল আহমেদ আজাদ (টিউবওয়েল) , মো: ওবায়দুল হক জুয়েল (তালা), হাদীসুর রহমান খান (লাঙ্গল)। এছাড়া মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে রিফাত জান তাপসী (ফুটবল) ও মৌরি আক্তার আশা মনি ( হাঁস)।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ