1. faysal.rakib2020@gmail.com : admin :
  2. sarderamin830@gmail.com : Ajkerajker Ganamat : Ajkerajker Ganamat
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৩:৫২ অপরাহ্ন
নোটিশ :
বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায় সংবাদকর্মী আবশ্যক । যোগাযোগ: 01773730313
সংবাদ শিরোনাম :
আজ আরাফাতের ময়দান মুখরিত হচ্ছে ‘লাব্বাইক’ ধ্বনিতে বাবুগঞ্জে উপজেলায় ফারজানা, বানারীপাড়ায় ফারুক এবং উজিরপুরে ইকবাল নির্বাচিত বরিশালে ক্লাবফুট চিকিৎসাসেবা নিয়ে জনসচেতনতামূলক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত। বরিশালে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সাংবাদিকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য-প্রধান তথ্য অফিসার বাবুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্বপন’র পক্ষে গণজোয়ার বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন ফারজানার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত প্রতিপক্ষ, প্রচারণায় বাধার অভিযোগ বাকেরগঞ্জে ৩ যুবককে কুপিয়ে আহত ঝলকাঠি উপজেলা নির্বাচনে সরাসরি হস্তক্ষেপ করছেন আমির হোসেন আমু টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

পাহাড়ঘেরা উত্তরবঙ্গের এই ছোট্ট গ্রামের অপূর্ব শোভা নজর কাড়বেই।

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৩
  • ৮৩ 0 বার সংবাটি দেখেছে

 

সাইদুর রহমান সাঈদ

উত্তরবঙ্গে এমন বেশ কয়েকটি জায়গা আছে যেখানকার অসাধারণ শোভা রীতিমতো চ্যালেঞ্জ ছুঁড়বে বিশ্বের তাবড় পর্যটন কেন্দ্রগুলিকে। সমতল থেকে বহু উঁচুতে একের পর এক পাহাড়-ঘেরা গ্রামে হরেক রঙের পাহাড়ি ফুলের অনন্য সাধারণ সৌন্দর্য্যে পর্যটকরা মোহিত হয়ে যান। এই প্রতিবেদনে তেমনই একটি গ্রামের উল্লেখ পাবেন পাঠকরা। একবার যে গ্রামে ঢুঁ মারলে, ফিরতে মন চাইবে বারবার। দিন কয়েকের এই ‘বিলাসিতা’ জীবনভর স্মৃতির পাতায় রঙিন হয়ে থাকবে।

কালিম্পঙের সবুজ পাহাড়ে ঘেরা গ্রাম ভালুকহোপ। এগাঁয়ের সৌন্দর্য্যের কথা ভাষায় প্রকাশ করা দুঃসাধ্য। সমুদ্রপৃষ্ঠ এই এলাকার উচ্চতা প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার ফুট। নির্জন-নিরিবিলি এতল্লাটে মন পাবে আরাম। ছোট্ট এই গ্রামের বাসিন্দাদের অসাধারণ আতিথেয়তা উপরি পাওনা। শীতকাল তো বটেই, তাছাড়াও বছরে যে কোনও সময়ে এই গ্রামে একবার ঢুঁ মেরে আসতে পারেন। পছন্দের সঙ্গী বা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নিরিবিলি-নিরালায় দিন কয়েকের ছুটি কাটানোর জন্য এতল্লাটের যেন জুড়ি নেই।

 

আরও পড়ুন- পাহাড়ঘেরা গ্রামের বুক চিরেছে নদী, উত্তরবঙ্গের অসাধারণ এপ্রান্ত অনেকেরই অজানা!

কীভাবে যাবেন ভালুকহোপ গ্রামে?

নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে কালিম্পঙের গাড়ি পেয়ে যাবেন। কালিম্পঙে পৌঁছে সেখান থেকে ভালুকহোপ গ্রামের উদ্দেশে রওনা দিতে পারেন। কিংবা নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন থেকে কথাবার্তা সেরে নিলে সরাসরি সেই গাড়িই আপনাকে পৌঁছে দেবে পাহাড়ঘেরা কালিম্পঙের ভালুকহোপ গ্রামে।

এখানে কী কী দেখবেন?

দিন কয়েকের ছুটিতে গেলে প্রথম দিনটি রেখে দিন স্থানীয় এলাকায় ঘোরবার জন্য। পায়ে হেঁটেই ছোট্ট এই গ্রামে একবার হেঁটে আসতে পারেন। মন ভুলিয়ে দেওয়ার মতো অপরূপ সৌন্দর্যের ষোলোআনা স্বাদ মিলবে। প্রতিটি বাড়িতেই লাল, নীল, সবুজ, বেগুনি রঙের পাহাড়ি ফুল। তবে এই এলাকার ৮-১০ কিলোমিটারের মধ্যেই রয়েছে বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র। এখান থেকেই গাড়ি ভাড়া করে ঘুরে আসতে পারেন ডেলো পার্ক থেকে। ডেলো পাহাড়ের উপরের এই এলাকায় বর্তমানে স্কাই ড্রাইভিং রাইড বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। এছাড়াও হনুমান মন্দির, বুদ্ধ মূর্তি, গুরু পদ্মসম্ভবের মূর্তি ঘুরে দেখে আসতে পারেন। কেনাকাটার ইচ্ছে থাকলে কালিম্পঙ বাজারে চলে যান।

আরও পড়ুন- কলকাতা থেকে সকালে বেরিয়ে সন্ধেয় ফিরুন, মন জুড়োবে অসাধারণ এই নদীপাড়

ভালুকহোপ গ্রামে থাকার বন্দোবস্ত কী?

ভালুকহোপে বেশ কয়েকটি হোম স্টে রয়েছে। এঁদের আতিথেয়তাও নজরকাড়া। গুগুলে সার্চ করে হোম স্টেগুলিতে রুম বুক করে নিতে পারেন। চাইলে সেখানেই থাকতে পারেন। এছাড়াও রয়েছে ভালুকোপ ইকো রিসর্ট, ফোন নম্বর- 9007224814/9163428385।

আরও পড়ুন- নির্জন সমুদ্রে লাল

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন

Comments are closed.

‍এই ক্যাটাগরির ‍আরো সংবাদ